বিচারপতি এম এ মতিন

পবিত্র কোরআনে আল্লাহ বলেছেন, ‘… নিঃসন্দেহে প্রতিটি কষ্টের সাথেই রয়েছে স্বস্তি। (সূরা ইনশিরাহ, আয়াত ৫-৬)’ এ আয়াতের গূঢ় অর্থটা হলো, যে-কোনো বিপর্যয়ের মধ্যে সুপ্ত থাকে উজ্জ্বল ভবিষ্যতের ইঙ্গিত বা সম্ভাবনা। এ সময়টাতে সস্ত্রীক আমার যাওয়ার কথা ছিল লন্ডন হয়ে স্পেনে। কিন্তু উদ্ভূত করোনা পরিস্থিতির দরুন আমাদের সফর বাতিল হয়েছে। তার বদলে আমরা পেয়েছি গুরুজীর তরফ থেকে গুরুত্বপূর্ণ দিক-নির্দেশনাসহ ‘শুদ্ধাচার’ বইটি পড়ার ও নবীজীবনী শোনার সুযোগ। পাশাপাশি এই দিনগুলোতে আমি আমার প্রকাশিতব্য ‘কোরআন : ইটস মোরাল, সিভিল, ক্রিমিনাল এন্ড আদার ল’জ’ বইটির কাজও গুছিয়ে নিচ্ছি।

স্বাস্থ্যরক্ষার জন্যে এখন সাঁতার কাটা বা প্রাতঃভ্রমণের সুযোগ নেই সত্যি, কিন্তু তাই বলে জীবন থেমে নেই। প্রতিদিন ছাদে গিয়ে আমি কাঠমল্লিকা ও নানা রকম ফুলের তাজা সৌরভ উপভোগ করছি। ছাদ-বাগানের আম, পেয়ারা ইত্যাদি গাছের সাথে সকাল-বিকেল দুবেলা গল্প করছি। হাঁটছি, বুক ভরে শ্বাস নিচ্ছি। এখন দূষণ তো নেই-ই, বরং বাতাসটা বেশ সতেজ ও পরিষ্কার।

মৃত্যু নিয়ে যখন চারদিকে একটা আতঙ্ক, গুরুজী তখন আমাদের আহ্বান জানাচ্ছেন–এই আতঙ্ককে জয় করার জন্যে। তিনি আমাদের সাহসী হতে বলছেন। বাস্তবেও দেখা যাচ্ছে, যারাই বর্তমান এ পরিস্থিতি সাহসিকতার সাথে মোকাবেলা করছেন তারাই ভালোভাবে টিকে আছেন। এমন পরিস্থিতিতে ভয়কে জয় করার আহ্বান জানানো সত্যিই সাহসিকতার পরিচায়ক। আর এ আহ্বানে সাড়া দেয়াও সাহসিকতারই নিদর্শন। যদিও দেশে-বিদেশে কর্মরত আমার সন্তান ও পরিবারের সদস্যদের জন্যে আমার কিছুটা দুর্ভাবনা হচ্ছে, কিন্তু সেই অনুভূতিটা আবার আমার প্রার্থনায় যোগ করেছে বাড়তি মমতা ও ভালবাসা।

চতুর্দশ শতকের ফার্সি কবি হাফিজের একটি কবিতার কয়েকটি চরণ আমার খুব পছন্দের, যার মর্মার্থ হলো, ‘আমাদের হৃদয় হলো সহস্র তন্ত্রীর এক বাদ্যযন্ত্র, যা বেজে ওঠে কেবল মমতার স্পর্শে এবং যাবতীয় দুঃখ-ভয় তখন পালিয়ে যায়।’ বর্তমান পরিস্থিতিতে এ কথাটা খুবই তাৎপর্যপূর্ণ বলে আমি মনে করি।

বর্তমানে আমি আমার সময়ের সর্বোত্তম ব্যবহার করার চেষ্টা করছি। আল্লাহ তায়ালার কাছে সেজদা শেষে আমি কোরআন পাঠ করি, তারপর ধ্যানমগ্ন হই। এটি আমাকে আশ্বস্ত করে, বিপদমুক্তির পথ দেখায়। এ কারণে আমার মধ্যে মৃত্যুভয় নেই। মৃত্যু যখন আসার সে তো আসবেই, কিন্তু সেই ভয় আমাকে পরাজিত করতে পারে না। সর্বশক্তিমান আল্লাহর ইচ্ছায় যে-কোনো পরিস্থিতিতে চলমান থাকবে আমার কাফেলা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.